শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬:৩৬ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ:

শুভ জন্মদিন জেমস

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২ অক্টোবর, ২০২২

ডেস্ক রিপোর্ট: 

আজ ২ অক্টোবর দেশের জননন্দিত গায়ক, গিটারিস্ট , গীতিকার, বিজ্ঞাপন মডেল ও নেপথ্যে বলিউড অভিনেতাজেমসের জন্মদিন । ১৯৬৪ সালে আজকের এই দিনে নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার একটি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন জেমস।নওগাঁয় জন্মগ্রহণ করলে ও তার বেড়ে ওঠা এবং শিক্ষাজীবন কাটে চট্টগ্রাম শহরে। তার আসল নাম ফারুক মাহফুজ আনাম হলেও মঞ্চে তিনি জেমস নামেই পরিচিত । তিনি রক ব্যান্ড “ফিলিংস” (বর্তমানে নগর বাউল হিসাবে পরিচিত) এর প্রধান গায়ক, গীতিকার ও গিটারিস্ট।

জেমসের বাবা ছিলেন একজন সরকারি কর্মকর্তা, যিনি পরবর্তীতে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সঙ্গীত জেমসের পছন্দের হলেও তার পরিবার তা পছন্দ করত না। গানের জন্য বাবার সাথে অভিমান করে ঘর ছাড়েন তিনি কিশোর বয়সে। চট্টগ্রামের আজিজ বোর্ডিং নামক একটি বোর্ডিং-এ তিনি থাকতে শুরু করেন। সেখানে থেকেই তার সঙ্গীতের ক্যারিয়ার শুরু হয়। এহসান এলাহী ফানটি ও কিছু বন্ধুদের নিয়ে তিনি প্রতিষ্ঠা করেন ফিলিংস নামক একটি ব্যান্ড দল।

জেমস ১৯৯০ এর দশকে ফিলিংসের মুখ্যব্যক্তি হিসাবে মূলধারার খ্যাতিতে উঠে এসেছিলেন, যা “বিগ থ্রি অফ রক” এর মধ্যে অন্যতম। বাংলাদেশের সাইকেডেলিক রক এর প্রবর্তক হিসাবে বিবেচনা করা হয় এবং তাকে প্রায়শই “গুরু” নামে অভিহিত করা হয়। জেমস ব্যান্ডের পাশাপাশি “অনন্যা”, “পালাবে কোথায়?”, “দুঃখিনি দুঃখ করোনা”, “ঠিক আছে বন্ধু” এর মতো হিট অ্যালবাম উপহার দিয়েছেন তার দর্শকদের কাছে।

২০০০ সালের প্রথম দিকে জেমস পেপসির একটি বিজ্ঞাপন চিত্রে অংশগ্রহণ করেন। এই বিজ্ঞাপনটি বাংলাদেশ এবং পশ্চিম বঙ্গে প্রচার করা হয়।আর বিজ্ঞাপনটির মাধ্যমে জেমস সেসময় আরো জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছিলো বাংলার মানুষের কাছে।এরপর তিনি ২০১১ সালে এনার্জি ড্রিংক ব্ল্যাক হর্সের বিজ্ঞাপনে কাজ করেন।তিনি বলিউডের চারটি চলচ্চিত্রে প্লেব্যাকও করেন, এগুলো গ্যাংস্টার (২০০৬), ওহ লামহে (২০০৬), লাইফ ইন এ… মেট্রো (২০০৭), ওয়ার্নিং (২০১৩)।

জেমস তার ক্যারিয়ার জীবনে অর্জন করেছে অনেক সন্মাননা ও এওয়্যার্ড । তবে এর মধ্যে অন্যতম কিছু অর্জন রয়েছে, যেমন ২০১৪ সালে “দেশা আসছে” (চলচ্চিত্র- দেশা দি লিডার) শিরোনামের গান দিয়ে শ্রেষ্ঠ পুরুষ কণ্ঠশিল্পী ক্যাটগরিতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার অর্জন করেন, ২০১৪ ও ২০১৭ সালে পরপর দুইবার যথাক্রমে “দেশা আসছে” (চলচ্চিত্র- দেশা দি লিডার) এবং “তোর প্রেমেতে অন্ধ হলাম” (চলচ্চিত্র – সত্তা) এই শিরোনামের গানগুলো দিয়ে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার পায়। এছাড়াও ২০১৬ সালে “বিধাতা”, (চলচ্চিত্র – সুইটহার্ট) গানের মাধ্যমে শ্রেষ্ঠ ছায়াছবির গান ক্যাটাগরিতে সিটিসেল-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস অর্জন করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2018 News Smart
ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট MetroNews71